সরকার ব্যবহারকারীদের তথ্য চেয়ে অনুরোধ জানালে Google কীভাবে সাড়া দেয়

বিশ্ব জুড়ে সরকারি সংস্থাগুলি Google-এর থেকে ব্যবহারকারীদের তথ্য চায়। সেই অনুরোধ প্রযোজ্য আইনের সাথে সামঞ্জস্যপূর্ণ কিনা, সেটি আমরা গভীরভাবে পর্যালোচনা করি। খুব বেশি তথ্য চেয়ে অনুরোধ এলে আমরা চেষ্টা করি যতটা সম্ভব কম দেওয়ার এবং কিছু ক্ষেত্রে আদৌ কোনও তথ্য দেওয়া হয় না। আমরা যত পরিমাণ এবং যত ধরনের অনুরোধ পাই, সেগুলি আমাদের ট্রান্সপারেন্সি রিপোর্ট-এ শেয়ার করি।

Google-এর পরিষেবা আপনাকে কে দিচ্ছে, তার উপর নির্ভর করে আমরা অনুরোধের জবাব দিই — যেমন, আমাদের বেশিরভাগ পরিষেবাই দেয় মার্কিন কোম্পানি Google LLC, যেটি মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের আইন মেনে কাজ করে বা আইরিশ কোম্পানি Google Ireland Limited, যেটি আয়ারল্যান্ডের আইন মেনে কাজ করে। আপনাকে কে পরিষেবা দিচ্ছে, সেটি জানতে Google-এর পরিষেবার শর্তাবলী দেখুন বা অ্যাকাউন্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটরকে জিজ্ঞাসা করুন যে কোনও প্রতিষ্ঠান আপনার Google অ্যাকাউন্ট ম্যানেজ করছে কিনা।

কোনও সরকারি সংস্থা থেকে এমন অনুরোধ এলে তথ্য দেওয়ার আগে আমরা ব্যবহারকারীর অ্যাকাউন্টে ইমেল পাঠাই। অ্যাকাউন্টটি কোনও প্রতিষ্ঠান ম্যানেজ করলে আমরা অ্যাকাউন্ট অ্যাডমিনিস্ট্রেটরকে বিজ্ঞপ্তি পাঠাব।

কিন্তু অনুরোধের শর্তাবলীতে এমন বিজ্ঞপ্তি পাঠানোর কথা আইনত নিষিদ্ধ থাকলে আমরা সেটি পাঠাব না। আইনি নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলে, যেমন বিধিবদ্ধ বা আদালতের নিষেধের মেয়াদ শেষ হয়ে গেলে আমরা বিজ্ঞপ্তি পাঠাব।

অ্যাকাউন্ট বন্ধ হয়ে গেলে বা অন্য কেউ বেআইনিভাবে ব্যবহার করলে আমরা বিজ্ঞপ্তি না-ও পাঠাতে পারি। জরুরি অবস্থা যেমন, শিশুর নিরাপত্তা বা কারও জীবন সংশয়ের আশঙ্কা থাকলে আমরা বিজ্ঞপ্তি না-ও পাঠাতে পারি। তবে, জরুরি অবস্থা কেটে গেলে আমরা বিজ্ঞপ্তি পাঠাব।

দেওয়ানি, প্রশাসনিক ও ফৌজদারি ক্ষেত্রে মার্কিন সরকারি সংস্থাগুলির তরফে তথ্য চেয়ে অনুরোধ

মার্কিন সংবিধানের চতুর্থ সংশোধনী এবং ইলেকট্রনিক কমিউনিকেশন্স প্রাইভেসি অ্যাক্ট (ECPA) অনুযায়ী কোনও পরিষেবা প্রদানকারীর কাছ থেকে জোর করে ব্যবহারকারীর তথ্য আদায় করার সরকারি ক্ষমতা সীমিত। মার্কিন কর্তৃপক্ষকে নিম্নলিখিত ন্যূনতম কাজ করতে হবে:

  • সব ক্ষেত্রে: গ্রাহকের প্রাথমিক রেজিস্ট্রেশন সংক্রান্ত তথ্য এবং কিছু IP অ্যাড্রেস জানতে তলবনামা জারি করতে পারে
  • ফৌজদারি ক্ষেত্রে
    • ইমেলে নন-কন্টেন্ট রেকর্ড যেমন কাকে পাঠানো হয়েছে, কে পাঠিয়েছে, CC, BCC এবং টাইমস্ট্যাম্প সংক্রান্ত ফিল্ডগুলির তথ্য জানাতে বাধ্য করতে আদালত থেকে অর্ডার নিয়ে আসতে পারে
    • যোগাযোগের কন্টেন্ট যেমন ইমেল, মেসেজ, ডকুমেন্ট এবং ফটো সংক্রান্ত তথ্য জানাতে বাধ্য করতে আদালতের থেকে তল্লাশির পরওয়ানা নিয়ে আসতে পারে

জাতীয় নিরাপত্তার স্বার্থ জড়িয়ে থাকলে মার্কিন সরকারি সংস্থাগুলির তরফে তথ্য চেয়ে অনুরোধ

জাতীয় নিরাপত্তার তদন্তের ক্ষেত্রে Google-কে ব্যবহারকারীর তথ্য জানাতে বাধ্য করতে মার্কিন সরকার ন্যাশনাল সিকিউরিটি লেটার (NSL) বা ফরেন ইনটেলিজেন্স সার্ভেল্যান্স অ্যাক্টের (FISA) আওতায় ক্ষমতা প্রয়োগ করতে পারে।

  • ন্যাশনাল সিকিউরিটি লেটার ব্যবহার করতে গেলে আদালতের অনুমোদন দরকার নেই এবং গ্রাহকের সম্পর্কে সীমিত তথ্য দিতে আমাদের বাধ্য করা যায়।
  • ফরেন ইনটেলিজেন্স সার্ভেল্যান্স অ্যাক্টের অর্ডার এবং অনুমোদন কাজে লাগিয়ে ইলেট্রনিক সার্ভেল্যান্স চালাতে বাধ্য করা যায় এবং স্টোর থাকা ডেটা, যেমন Gmail, Drive এবং Photos-এর মতো পরিষেবাগুলির কন্টেন্ট সরকারকে জানানো যায়।

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে অন্য দেশের সরকারের তরফে তথ্য চেয়ে অনুরোধ

মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাইরে অন্য দেশের সরকারের থেকে কখনও-কখনও ব্যবহারকারীর তথ্য জানতে চেয়ে Google LLC-কে অনুরোধ জানানো হয়। এমন অনুরোধ পেলে আমরা ব্যবহারকারীর তথ্য দিতে পারি। কিন্তু নিম্নলিখিত বিষয়ের সাথে সেটি সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে:

  • মার্কিন আইন, যার অর্থ হল ইলেকট্রনিক কমিউনিকেশন্স প্রাইভেসি অ্যাক্টের (ECPA) মতো আইনের আওতায় ব্যবহারকারীর তথ্য অ্যাক্সেস করা এবং বিদেশি সরকারের হাতে তুলে দেওয়া
  • অনুরোধকারী দেশের আইন যার অর্থ হল বিদেশে অনুরূপ পরিষেবা প্রদানকারীর কাছে কোনও অনুরোধ করা হলে যে যথাযথ পদ্ধতি ও আইনি প্রয়োজনাদি অনুসরণ করা দরকার, সেটি সংশ্লিষ্ট বিদেশি সরকার এক্ষেত্রেও করছে কিনা
  • আন্তর্জাতিক নিয়ম যার অর্থ হল আমরা শুধু সেই অনুরোধেরই জবাব দেব যা গ্লোবাল নেটওয়ার্ক ইনিশিয়েটিভেরবাকস্বাধীনতা ও গোপনীয়তা নীতি এবং তার সাথে যুক্ত প্রযোজ্য নির্দেশিকা অনুযায়ী সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে
  • Google-এর নীতি আমরা অনুসরণ করব যার অন্তর্গত রয়েছে প্রযোজ্য পরিষেবার শর্তাবলী ও গোপনীয়তা নীতি এবং বাকস্বাধীনতা রক্ষার নীতি।

কারণ Google Ireland ইউরোপীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং সুইজারল্যান্ডে Google-এর বেশিরভাগ পরিষেবা দিয়ে থাকে। ফলে, ব্যবহারকারীর তথ্য চেয়ে তাদের কাছেও অনুরোধ জমা পড়ে।

আইরিশ সরকারি সংস্থাগুলির তরফে তথ্য চেয়ে অনুরোধ

কোনও আইরিশ সরকারি সংস্থা ব্যবহারকারীর তথ্য চেয়ে অনুরোধ জানালে Google আইরিশ আইন অনুযায়ী সেটি খতিয়ে দেখে। আইরিশ আইন অনুযায়ী Google Ireland-কে ব্যবহারকারীর তথ্য দিতে বাধ্য করা হলে আইরিশ সরকারি সংস্থাগুলিকে আদালত থেকে অর্ডার নিয়ে আসতে হবে।

আয়ারল্যান্ডের বাইরে অন্য দেশের সরকারের তরফে তথ্য চেয়ে অনুরোধ

Google ইউরোপীয় অর্থনৈতিক অঞ্চল এবং সুইজারল্যান্ড জুড়ে ব্যবহারকারীদের পরিষেবা দেয়। ফলে, আয়ারল্যান্ডের বাইরে অন্য দেশের সরকারও কখনও-কখনও আমাদের ব্যবহারকারীর ডেটা জানাতে অনুরোধ করে। এক্ষেত্রে ব্যবহারকারীর ডেটা আমরা জানাতে পারি। কিন্তু নিম্নলিখিত বিষয়ের সাথে সেটি সামঞ্জস্যপূর্ণ হতে হবে:

  • আইরিশ আইন, যেমন আইরিশ ক্রিমিনাল জাস্টিস অ্যাক্টের মতো আইনের আওতায় ব্যবহারকারীর তথ্য অ্যাক্সেস করা এবং সরকারের হাতে তুলে দেওয়া অনুমোদিত হতে হবে
  • আয়ারল্যান্ডে প্রযোজ্য ইউরোপীয় ইউনিয়নের (EU) আইন , যার অর্থ হল জেনারেল ডেটা প্রোটেকশন রেগুলেশন (GDPR) সহ ইউরোপীয় ইউনিয়নের যেকোনও প্রযোজ্য আইন
  • অনুরোধকারী দেশের আইন যার অর্থ হল বিদেশে অনুরূপ পরিষেবা প্রদানকারীর কাছে কোনও অনুরোধ করা হলে যে যথাযথ পদ্ধতি ও আইনি প্রয়োজনাদি অনুসরণ করা দরকার, সেটি সংশ্লিষ্ট বিদেশি সরকার এক্ষেত্রেও করছে কিনা
  • আন্তর্জাতিক নিয়ম যার অর্থ হল আমরা শুধু সেই অনুরোধেরই জবাব দেব যা গ্লোবাল নেটওয়ার্ক ইনিশিয়েটিভেরবাকস্বাধীনতা ও গোপনীয়তা নীতি এবং তার সাথে যুক্ত প্রযোজ্য নির্দেশিকা অনুযায়ী সামঞ্জস্যপূর্ণ হবে
  • Google-এর নীতি আমরা অনুসরণ করব যার অন্তর্গত রয়েছে প্রযোজ্য পরিষেবার শর্তাবলী ও গোপনীয়তা নীতি এবং বাকস্বাধীনতা রক্ষার নীতি।

আমাদের যদি মনে হয় যে কাউকে বাঁচাতে পারব বা গুরুতর জখম হওয়া থেকে আটকাতে পারব, তাহলে কোনও সরকারি সংস্থাকে তথ্য দিতে পারি — যেমন, বোমা বিস্ফোরণের হুমকি, স্কুলে গুলিচালনা, অপহরণ, আত্মঘাতী হওয়া থেকে বিরত করা এবং নিখোঁজ হয়ে যাওয়ার ঘটনা। প্রযোজ্য আইন এবং আমাদের নীতি অনুযায়ী এ ধরনের অনুরোধগুলিকে আমরা বিবেচনা করতে পারি।